গত ২৪ ঘন্টার তথ্য অনুযায়ী করোনা ভাইরাস এর আপডেট নিউজ

করোনা ভাইরাস

Total Views: 7531

০৭ আগস্ট করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে সর্বমোট ৩ হাজার ৩৩৩ জন মারা গেছেন।

এই সময়ে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৮৫১ জন। এ নিয়ে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ৫২ হাজার ৫০২ জন।

শুক্রবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ৬৯৯টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৮৫১ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৫২ হাজার ৫০২ জন।

তিনি জানান, এই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে আরও ২৭ জনের। মোট মৃত্যু ৩ হাজার ৩৩৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৭৬০ জন কোভিড রোগ থেকে সেরে উঠেছেন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৪৫ হাজার ৫৮৪ জন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

 

০৬ আগস্ট করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত  সর্বমোট তিন হাজার ৩০৬ জন মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের এক অনলাইন ব্রিফিংয়ে এমন তথ্য জানা গেছে।

বুলেটিনে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ১৮৯টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২ হাজার ৭০৮টি পিসিআর পরীক্ষা করা হয়। এ পর্যন্ত ১২ লাখ ২৫ হাজার ১২৪টি পিসিআর পরীক্ষা করা হয়। তার মধ্যে দুই লাখ ৪৯ হাজার ৬৫১টি করোনা পজিটিভ এসেছে।

‘আর গত একদিনে করোনা পজিটিভ এসেছে দুই হাজার ৯৭৭ জনের। একদিনে শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ২৩ দশমিক ৪৩ শতাংশ। আর এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৩৮ শতাংশ।’

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, এসময়ে দুই হাজার ৭৪ জন কোভিড-১৯ রোগ থেকে সেরে উঠেছেন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৪৩ হাজার ৮২৪ জন। শনাক্ত বিবেচরনায় সুস্থতার হার ৫৭ দশমিক ৬১ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে পুরুষ ৩২ জন, আর নারী সাতজন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

০৫ আগস্ট করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মহামারীতে সর্বমোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল তিন হাজার ২৬৭ জনে।

বুধবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অনলাইন ব্রিফিংয়ে এমন তথ্য মিলেছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক(প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, গত একদিনে ১১ হাজার ৯৬৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যাদের মধ্যে শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ৬৫৪ জন। এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছে দুই লাখ ৪৬ হাজার ৬৭৪ জন।

তিনি জানান, ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৭৮ শতাংশ। এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৩৫ শতাংশ। আর এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১২ লাখ ১২ হাজার ৪১৬টি।

‘২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৮৯০ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৪১ হাজার ৭৫০ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৭ দশমিক ৪৬ শতাংশ।’

নাসিমা সুলতানা বলেন, শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৩২ শতাংশ। যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে পুরুষ ২৫ জন, নারী আট জন।

‘এ পর্যন্ত দুই হাজার ৫৭৪ জন পুরুষ মারা গেছেন ও নারী ৬৯৩ জন। মৃতদের মধ্যে ৭৮ দশমিক ৭৯ শতাংশ পুরুষ, আর ২১ দশমিক ২১ শতাংশ নারী।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

০৪ আগস্ট করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

কোভিড-১৯ মহামারীতে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৯১৮ জন।

মঙ্গলবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

নতুন করে ৫০ জন নিয়ে দেশে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল তিন হাজার ২৩৪ জনে। আর মোট শনাক্তের সংখ্যা দুই লাখ ৪৪ হাজার ২০ জন।
মারা যাওয়া ৫০ জনের মধ্যে পুরুষ ৪৪ জন ও নারী ৬ জন।
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ হাজার ৯৫৫ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৩৯ হাজার ৮৬০ জন। এ সময়ে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৭ হাজার ৭১২টি।

দেশে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত (কোভিড-১৯) প্রথম রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। তার ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

বুলেটিনে বরাবরের মতো করোনা থেকে সুরক্ষিত ও সুস্থ থাকতে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান ডা. নাসিমা।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার অ্যান্ড কন্ট্রোলরূম সূত্রে জানা গেছে, জুন মাসে ৯৮ হাজার ৩৩০ জন আক্রান্ত হন। জুন মাসে গড়ে প্রতিদিন তিন হাজার ২৭৮ জন আক্রান্ত হন। আর সর্বোচ্চসংখ্যক মৃত্যু হয়েছে জুলাই মাসে। সংখ্যাটি ১ হাজার ২৬৪ জন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

 

০১ আগস্ট করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট    

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে পুরুষ ১৬ জন ও পাঁচজন নারী। এ নিয়ে সর্বমোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে তিন হাজার ১৩২ জনে দাঁড়িয়েছে।

শনিবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এমন তথ্য দেয়া হয়েছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক(প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, শনিবার ৮ হাজার ৮০২টি নুমনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যাদের মধ্যে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ১৯৯ জন। এতে দেশে সবমিলিয়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ৩৯ হাজার ৮৬০ জনে। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৯৮ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছে এক হাজার ১১৭ জন। এ নিয়ে এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৩৬ হাজার ২৫৩ জন।

বুলেটিনে বরাবরের মতো করোনা থেকে সুরক্ষিত ও সুস্থ থাকতে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান ডা. নাসিমা।

গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। গত ১৮ জুলাই আক্রান্তের সংখ্যা দুই লাখ পেরিয়ে যায় । গত ২ জুলাই করোনায় আক্রান্ত হন ৪ হাজার ১৯ জন , যা এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

 

৩০ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে সর্বমোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে তিন হাজার ৮৩ জনে দাঁড়িয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এমন তথ্য দেয়া হয়েছে। অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক(প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, এ সময়ে ১২ হাজার ৯৩৭টি নুমনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যাদের মধ্যে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৬৯৫ জন।

এতে দেশে সবমিলিয়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ৩৩৪ হাজার ৮৮৯ জনে। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৮৩ শতাংশ। তিনি বলেন, শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৩১ শতাংশ। যারা ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন, তাদের মধ্যে পুরুষ ৩৬ জন আর নারী ১২ জন।

‘গত একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন দুই হাজার ৬৬৮ জন। এ নিয়ে করোনা থেকে মোট সেরে ওঠার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক লাখ ৩২ হাজার ৯৬০ জনে।’ এই চিকিৎসক বলেন, এই পর্যন্ত দুই হাজার ৪২৪ জন পুরুষ করোনায় মারা গেছেন। আর নারী মারা গেছেন ৬৫৯ জন। ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্তের কথা জানিয়েছে সরকার। এর দুই মাসের মধ্যে দেশের ৬৪টি জেলায় তা ছড়িয়ে পড়ে।

মূলত মে মাসের শেষের দিকে ঈদুল ফিতরের সপ্তাহ দুয়েক পর থেকে রাজধানীর বাইরে খুব দ্রুত মহামারী বাড়তে দেখা গেছে। এ সময় দৈনিক নতুন রোগী শনাক্ত তিন হাজারের ওপরে চলে যায়।

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের(আইইডিসিআর) তথ্য বিশ্লেষণ বলছে, গত ঈদুল ফিতরের পর ২৭ মে পর্যন্ত দেশে মোট আক্রান্তের ৫৪ শতাংশই ছিল রাজধানীতে। আর বাকি ৪৬ শতাংশ রোগী ছিল ঢাকার বাইরে।

এরপর গতকাল বুধবারের হিসাবে দেখা গেছে, মোট আক্রান্তের ৬৯ শতাংশই রাজধানী ঢাকার বাইরের বাসিন্দা। এই দুই মাসের ব্যবধানে রাজধানীতে আক্রান্তের সংখ্যা তিন গুণের বেশি বেড়েছে। আর রাজধানীর বাইরে আক্রান্ত বেড়েছে ১২ গুণ

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

২৯ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে সর্বমোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে তিন হাজার ৩৫ জনে দাঁড়িয়েছে। বুধবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এমন তথ্য দেয়া হয়েছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক(প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, এ সময়ে দেশে ১৪ হাজার ১২৭ জনের করোনা নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যাদের মধ্যে আক্রান্ত হয়েছেন তিন হাজার ৯ জন। ২৪ ঘন্টায় শনাক্তের হার ২১ দমমিক ৩০ শতাংশ। এতে দেশে সবমিলিয়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ৩২ হাজার ১৯৪ জনে।

তিনি বলেন, ২৪ ঘণ্টায় দুই হাজার ৮৭৮ জন সুস্থ হয়েছেন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৩০ হাজার ২৯২ জন। আর নতুন যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে পুরুষ ৩০, আর নারী পাঁচ জন।

তবে দেশে করোনায় মৃত্যু কমছে না। গত তিন সপ্তাহে মৃত্যুহারও কিছুটা বেড়েছে। মৃত্যুহার বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, কোভিড-১৯ রোগ সংক্রমণে মঙ্গলবার পর্যন্ত ২৩ দিনে এক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

দেশে এটিই দ্রুততম সময়ে করোনায় হাজার মানুষের মৃত্যুর রেকর্ড। প্রথম এক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছিল ৯৫ দিনে। আর দ্বিতীয় হাজার মৃত্যু পূর্ণ হতে সময় লেগেছে ২৫ দিন।

চলতি মাসের শুরু থেকে করোনায় নমুনা পরীক্ষা কমার সঙ্গে সঙ্গে নুতন রোগীও কমছে। কিন্তু রোগী শনাক্তের হার ও মৃত্যু কমছে না। ধীরে হলেও মৃত্যুর হার বাড়তে দেখা গেছে।

৫ জুলাই দেশে করোনায় মোট মৃত্যু দুই হাজার ছাড়িয়েছিল। সেদিন পর্যন্ত দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ছিল এক দশমিক ২৬ শতাংশ।

অবশ্য আক্রান্তের শীর্ষে থাকা দেশগুলোর তুলনায় বাংলাদেশে মৃত্যুর হার এখনো কম।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

২৭ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৯৬৫ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ২ হাজার ৭৭২ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ২৬ হাজার ২২৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮০১ জন এবং মোট সুস্থ ১ লাখ ২৫ হাজার ৬৮৩ জন। সোমবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ৮৫৯টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৭৭২ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ২ লাখ ২৬ হাজার ২২৫ জন। ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ২৬ জন ও নারী ১১ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৯৬৫ জন।

এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ২ হাজার ৩৩২ জন আর নারী ৬৩৩ জন। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮০১ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১ লাখ ২৫ হাজার ৬৮৩ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৫ দশমিক ৫৬ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩১ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বয়স বিভাজনে ২১-৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৮ জন এবং ৮১-৯০ বছরের একজন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩২ জন এবং বাড়িতে ৩ জন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ২৪ জন, চট্টগ্রামে ৫, খুলনায় ২, রংপুরে ৩, বরিশালে ২ এবং ময়মনসিংহে একজন মারা গেছেন।

এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ৪৩২ জন, চট্টগ্রামে ৭২৬, রাজশাহী ১৭৪, খুলনায় ২০৮, বরিশালে ১১২, রংপুরে ১১১, সিলেটে ১৪০ এবং ময়মনসিংহে ৬২ জন মারা গেছেন।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

২৬ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৯২৮ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ২ হাজার ২৭৫ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ২৩ হাজার ৪৫৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৭৯২ জন এবং মোট সুস্থ ১ লাখ ২৩ হাজার ৮৮২ জন।

রোববার স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানানো হয়। বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ৮ মার্চ, তা দুই লাখ পেরিয়ে যায় ১৮ জুলাই। এর মধ্যে ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ।

আর ১৮ মার্চ বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ১৭ জুলাই তা আড়াই হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৩০ জুন এক দিনে রেকর্ড ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়। এদিকে বৈশ্বিক করোনা মহামারীতে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা আজ রোববার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ছয় লাখ ৪৮ হাজার ৫৯০ জনে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে বিশ্বের এক কোটি ৬২ লাখ ১২ হাজার ৮৯৫ জন। তাদের মধ্যে বর্তমানে ৫৬ লাখ ৪৪ হাজার ৯২৯ জন চিকিৎসাধীন এবং ৬৬ হাজার ১৮২ জন (১ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে ৯৯ লাখ ১৯ হাজার ৩৭৬ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

২৫ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৮৭৪ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন। এই সময়ে ২ হাজার ৫২০ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ২১ হাজার ১৭৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ১১৪ জন এবং মোট সুস্থ ১ লাখ ২২ হাজার ৯০ জন। শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানানো হয়।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত দেশে আরও ২ হাজার ৫২০ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তাতে দেশে শনাক্ত রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২ লাখ ২১ হাজার ১৭৮ জন। গত এক দিনে দেশে আরও ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে; এ নিয়ে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৮৭৪ জনে।

আইইডিসিআরের ‘অনুমিত’ হিসাবে বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ১ হাজার ১১৪ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন গত ২৪ ঘণ্টায়। তাতে সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল মোট ১ লাখ ২২ হাজার ৯০ জন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত বুলেটিনে যুক্ত হয়ে অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা শনিবার দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির এই সবশেষ তথ্য তুলে ধরেন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ৮ মার্চ, তা দুই লাখ পেরিয়ে যায় ১৮ জুলাই। এর মধ্যে ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

২৪ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৮৩৬ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন। এই সময়ে ২ হাজার ৫৪৮ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ১৮ হাজার ৬৫৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৭৬৮ জন এবং মোট সুস্থ ১ লাখ ২০ হাজার ৯৭৬ জন।

শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ২৭টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৫৪৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ২ লাখ ১৮ হাজার ৬৫৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ১৯ শতাংশ।

ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৫ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ২৮ জন ও নারী ৭ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৮৩৬ জন। এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ২ হাজার ২৩৭ জন আর নারী ৫৯৯ জন। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৭৬৮ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১ লাখ ২০ হাজার ৯৭৬ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৫ দশমিক ৩৩ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩০ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বয়স বিভাজনে ৩১-৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৪, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ৮, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১৩, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৪, ৮১-৯০ বছরের ৩, ৯১-১০০ বছরের মধ্যে এক এবং ১০০ বছরের ওপরে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩২ জন এবং বাড়িতে ৩ জন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১১ জন, চট্টগ্রামে ৬, রাজশাহী এক, খুলনায় ৬, সিলেটে ৪, রংপুরে ৪ এবং বরিশালে ৩ জন মারা গেছেন। এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ৩৭২ জন, চট্টগ্রামে ৭০৭, রাজশাহী ১৫৯, খুলনায় ১৯৪, বরিশালে ১০৯, রংপুরে ১০৪, সিলেটে ১৩৩ এবং ময়মনসিংহে ৫৮ জন মারা গেছেন।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারী ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

২৩ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল দুই হাজার ৮০১ জনে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে হালনাগাদ তথ্য জানাতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অনলাইন ব্রিফিংয়ে এমন তথ্য জানা গেছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাসচিব অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, এসময়ে ১২ হাজার ৩৯৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যাদের মধ্যে দুই হাজার ৮৫৬ জন মহামারীতে আক্রান্ত হয়েছেন। আর দেশে সর্বমোট আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ১৬ হাজার ১১০ জন।

তিনি বলেন, এ পর্যন্ত পুরুষ মৃত্যুবরণ করেছেন দুই হাজার ২০৯ জন। আর নারী ৫৯২ জন। শতাংশ বিবেচনায় পুরুষ ৫৮ দশমিক ৮৬ শতাংশ ও নারী ২১ দশমিক ১৪ শতাংশ।

পরীক্ষা কমে যাওয়ায় বেশ কিছুদিন ধরে দেশে করোনায় আক্রান্ত নতুন রোগীর সংখ্যা কমতির দিকে। তবে এখনো নতুন রোগী শনাক্তের বৈশ্বিক তালিকায় বাংলাদেশ শীর্ষ দশেই রয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুয়ায়ী, গত এক সপ্তাহে মোট নতুন রোগী সবচেয়ে বেশি বেড়েছে এমন ১২ দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান দশম।

জুনের শুরুর দিকে থেকে বাংলাদেশে দৈনিক নতুন রোগী শনাক্তের সংখ্যা তিন হাজারের ওপরে চলে যায়। তখন থেকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওই তালিকায় স্থান করে নেয় বাংলাদেশ।

এতে বাংলাদেশ অষ্টম থেকে একাদশ স্থানের মধ্যেই থাকছে। চলতি মাসের শুরু থেকে করোনা পরীক্ষার সংখ্যা কমতে শুরু করে। এতে নতুন রোগী শনাক্তও কমে আসে।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

২২ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৭৫১ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ২ হাজার ৭৪৪ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ১৩ হাজার ২৫৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮০৫ জন এবং মোট সুস্থ ১ লাখ ১৭ হাজার ২০২ জন। বুধবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ হাজার ৯৭৬টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এরমধ্যে পূর্বের নমুনাসহ ১২ হাজার ৫০টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৭৪৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ২ লাখ ১৩ হাজার ২৫৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৭৭ শতাংশ। ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৪২ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩০ জন ও নারী ১২ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৭৫১ জন।

এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ২ হাজার ১৬৮ জন আর নারী ৫৮৩ জন। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮০৫ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১ লাখ ১৭ হাজার ২০২ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৪ দশমিক ৮০ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৯ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বয়স বিভাজনে ১১-২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১-৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১৪ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৮ জন এবং ৮১-৯০ বছরের একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩৭ জন এবং বাড়িতে ৫ জন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ২১ জন, চট্টগ্রামে ৮ জন, রাজশাহী, সিলেট ও খুলনায় ৩ জন করে এবং রংপুর ও বরিশালে ২ জন করে মারা গেছেন।

এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ৩৪১ জন, চট্টগ্রামে ৬৯৬ জন, রাজশাহী ১৫২, খুলনায় ১৮১ জন, বরিশালে ১০২ জন, রংপুরে ৯৩, সিলেটে ১২৮ এবং ময়মনসিংহে ৫৮ জন মারা গেছেন।

এদিকে বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা আজ বুধবার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ছয় লাখ ১৯ হাজার ৮১২ জনে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে বিশ্বের এক কোটি ৫১ লাখ সাত হাজার ৩২৭ জন। তাদের মধ্যে বর্তমানে ৫৩ লাখ ৫৯ হাজার ৩৫৭ জন চিকিৎসাধীন এবং ৬৩ হাজার ৬৩৪ জন (১ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে ৯১ লাখ ২৮ হাজার ১৫৮ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

 

২০ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৬৬৮ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ২ হাজার ৯২৮ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ৭ হাজার ৪৫৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯১৪ জন এবং মোট সুস্থ ১ লাখ ১৩ হাজার ৫৫৬ জন।

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

 

১৯ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৬১৮ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ২ হাজার ৪৫৯ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ৪ হাজার ৫২৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৫৪৬ জন এবং মোট সুস্থ ১ লাখ ১১ হাজার ৬৪২ জন। রোববার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১০ হাজার ৯৩৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১০ হাজার ৬২৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৪৫৯ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৪ হাজার ৫২৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ১৪ শতাংশ।

ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ২৯ জন ও নারী ৮ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৬১৮ জন।

এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ২ হাজার ৬৯ জন আর নারী ৫৪৯ জন। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৫৪৬ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১ লাখ ১১ হাজার ৬৪২ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৪ দশমিক ৫৯ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৮ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বয়স বিভাজনে ২১-৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ২০ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৪ জন, ৮১-৯০ বছরের একজন এবং ৯১-১০০ বছরের মধ্যে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩২ জন এবং বাড়িতে ৫ জন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১৫ জন, চট্টগ্রামে ৮ জন, রাজশাহীতে ৩ জন, সিলেটে ২ জন, খুলনায় ৭ জন, রংপুর ও ময়মনসিংহে একজন করে জন মারা গেছেন। এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ২৮৪ জন, চট্টগ্রামে ৬৬৬ জন, রাজশাহী ১৩৯, খুলনায় ১৬৩ জন, বরিশালে ৯৮ জন, রংপুরে ৮৮, সিলেটে ১২২ এবং ময়মনসিংহে ৫৮ জন মারা গেছেন

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

 

১৮ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৫৮১ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন। এই সময়ে ২ হাজার ৭০৯ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ২ হাজার ৬৬ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৩৭৩ জন এবং মোট সুস্থ ১ লাখ ১০ হাজার ৯৮ জন। শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১০ হাজার ৬৩২টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১০ হাজার ৯২৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৭০৯ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ২ লাখ ২ হাজার ৬৬ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৮০ শতাংশ। ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৪ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ২৯ জন ও নারী ৫ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৫৮১ জন।

এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ২ হাজার ৪০ জন আর নারী ৫৪১ জন। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৩৭৩ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১ লাখ ১০ হাজার ৯৮ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৪ দশমিক ৪৯ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৮ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বয়স বিভাজনে ২১-৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে একজন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ১০ জন এবং ৮১-৯০ বছরের এক জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩২ জন এবং বাড়িতে ২ জন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১৪ জন, চট্টগ্রামে ৩ জন, রাজশাহীতে ৫ জন, সিলেটে ৪ জন, খুলনায় ৬ জন, বরিশাল ও ময়মনসিংহে একজন করে জন মারা গেছেন।

এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ২৬৯ জন, চট্টগ্রামে ৬৫৮ জন, রাজশাহী ১৩৬, খুলনায় ১৫৬ জন, বরিশালে ৯৮ জন, রংপুরে ৮৭, সিলেটে ১২০ এবং ময়মনসিংহে ৫৭ জন মারা গেছেন।

সোর্স: দৈনিক যুগান্তর   

 

১৭ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৫১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৫৪৭ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ৩ হাজার ৩৪ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৯৯ হাজার ৩৫৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৭৬২ জন এবং মোট সুস্থ ১ লাখ ৮ হাজার ৭২৫ জন। শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৬৮১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৩ হাজার ৪৬০টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ৩৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৯৯ হাজার ৩৫৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৫৪ শতাংশ। ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৫১ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৪০ জন ও নারী ১১ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৫৪৭ জন।

এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ২ হাজার ১১ জন আর নারী ৫৩৬ জন। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৭৬২ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১ লাখ ৮ হাজার ৭২৫ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৪ দশমিক ৫৪ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৮ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বয়স বিভাজনে ২১-৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ১১ জন এবং ৮১-৯০ বছরের ২ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৪২ জন এবং বাড়িতে ৯ জন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১৩ জন, চট্টগ্রামে ১৬ জন, রাজশাহীতে ৩ জন, সিলেটে ৩ জন, খুলনায় ৬ জন, বরিশালে ৬ জন এবং রংপুরে ৪ জন মারা গেছেন।

এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ২৫৫ জন, চট্টগ্রামে ৬৫৫ জন, রাজশাহী ১৩১, খুলনায় ১৫০ জন, বরিশালে ৯৭ জন, রংপুরে ৮৭, সিলেটে ১১৬ এবং ময়মনসিংহে ৫৬ জন মারা গেছেন

সোর্স দৈনিক যুগান্তর   

 

১৬ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এই মহামারীতে দুই হাজার ৪৯৬ জন মারা গেছেন।বৃহস্পতিবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের এক অনলাইন ব্রিফিংয়ে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, গত এক দিনে দুই হাজার ৭৩৩ জন করোনায় পজিটিভ এসেছেন। এ নিয়ে সর্বমোট আক্রান্ত হয়েছেন এক লাখ ৯৬ হাজার ৩২৩ জন। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ২০ শতাংশ।

তিনি বলেন, নতুন এক হাজার ৯৪০ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৬ হাজার ৯৬৩ জন। ‘২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৫৪৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আর ১২ হাজার ৮৮৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৯ লাখ ৯৩ হাজার ২৯১টি। ’নাসিমা সুলতানা বলেন, ২৪ ঘণ্টায় যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ৩১ জন, আর নারী আটজন

সোর্স ঃ দৈনিক যুগান্তর    

 

১৫ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

নভেল করোনা ভাইরাস জনিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দুই হাজার ৪৫৭ জনের মৃত্যু হলো। এ ছাড়া দেশে নতুন করে আরো তিন হাজার ৫৩৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট এক লাখ ৯৩ হাজার ৫৯০ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের বিভাগভিত্তিক পরিসংখ্যান প্রকাশ করে ডা. নাসিমা বলেন, ঢাকা বিভাগে ১৬ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে সাতজন, রাজশাহী বিভাগে দুইজন, খুলনা বিভাগ পাঁচজন এবং রংপুর বিভাগ তিনজন মারা গেছেন। এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে ১২২৪ জন, খুলনা ১৩৮ জন, সিলেট ১১০ জন, ময়মনসিংহ ৫৬ জন, চট্টগ্রাম ৬৩৩, রংপুর ৮০ জন, রাজশাহী ১২৭ ও বরিশাল বিভাগে ৮৯ জন করোনায় মারা গেছেন।

আজ বুধবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আয়োজিত নিয়মিত বুলেটিনে অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান।

এদিকে, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা বাড়ছেই। শেষ খবর অনুযায়ী, আজ বুধবার সকাল পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ লাখ ৮১ হাজার ২২১ জনে। বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার এ তথ্য জানিয়েছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে বিশ্বের এক কোটি ৩৪ লাখ ৫৭ হাজার ৪৫৮ জন। তাদের মধ্যে বর্তমানে ৫০ লাখ ২৯ হাজার ১১ জন চিকিৎসাধীন এবং ৫৯ হাজার ৫৭৯ জন আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে।

এ ছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত ৭৮ লাখ ৪৭ হাজার ২২৬ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে। গত বছরের ডিসেম্বরে চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

১৪ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

১৪ জুলাই যুগান্তর রিপোর্ট   

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৪২৪ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ৩ হাজার ১৬৩ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৯০ হাজার ৫৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৯১০ জন এবং মোট সুস্থ ১ লাখ ৩ হাজার ২২৭ জন। মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৯৮৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৩ হাজার ৪৫৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ১৬৩জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৯০ হাজার ৫৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৫১ শতাংশ। ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৩ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ২৩ জন ও নারী ১০ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৪২৪ জন।

এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা এক হাজার ৯১৩ জন আর নারী ৫১১ জন। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৯১০ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১ লাখ ৩ হাজার ২২৭ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৪ দশমিক ৩১ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৮ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বয়স বিভাজনে ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৪ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ৯ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ১১ জন এবং ৮১-৯০ বছরের একজন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১৩ জন, চট্টগ্রামে ৩ জন, রাজশাহীতে ৪ জন, খুলনায় ৫ জন, বরিশালে একজন, রংপুরে ২ জন এবং সিলেটে ৫ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৪৩ জন এবং বাড়িতে ৪ জন মারা গেছেন।

এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ২০৮ জন, চট্টগ্রামে ৬২৬ জন, রাজশাহী ১২৫, খুলনায় ১৩৩ জন, বরিশালে ৮৯ জন, রংপুরে ৭৭, সিলেটে ১১০ এবং ময়মনসিংহে ৫৬ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ২৯ জন এবং বাড়িতে ৪ জন মারা গেছেন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

 

১৩ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট    

১৩ জুলাই যুগান্তর রিপোর্ট   

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৩৯১ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন। এই সময়ে ৩ হাজার ৯৯ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৮৬ হাজার ৮৯৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৭০৩ জন এবং মোট সুস্থ ৯৮ হাজার ৩১৭ জন।

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ৩৫৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২ হাজার ৪২৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ৯৯ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৮৬ হাজার ৮৯৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৯ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩০ জন ও নারী ৯ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৩৯১ জন। এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা এক হাজার ৮৯০ জন আর নারী ৫০১ জন।

তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৭০৩ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৯৮ হাজার ৩১৭ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫২ দশমিক ৬১ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৮ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বয়স বিভাজনে ০-১০ বছরের মধ্যে একজন, ১১-২০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৩ জন এবং ৮১-৯০ বছরের একজন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১৯ জন, চট্টগ্রামে ৫ জন, খুলনায় ৭ জন, বরিশালে ৩ জন, রংপুরে ও সিলেটে ২ জন করে এবং ময়মনসিংহে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৪৩ জন এবং বাড়িতে ৪ জন মারা গেছেন।

এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ১৯৫ জন, চট্টগ্রামে ৬২৩ জন, রাজশাহী ১২১, খুলনায় ১২৮ জন, বরিশালে ৮৮ জন, রংপুরে ৭৫, সিলেটে ১০৫ এবং ময়মনসিংহে ৫৬ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩৪ জন এবং বাড়িতে ৫ জন মারা গেছেন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

১২ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আপডেট     

যুগান্তর রিপোর্ট  

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৩৫২ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ২ হাজার ৬৬৬ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৮৩ হাজার ৭৯৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ৫৮০ জন এবং মোট সুস্থ ৯৩ হাজার ৬১৪ জন। রোববার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ হাজার ২১০টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১১ হাজার ৫৯টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৬৬৬ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৮৩ হাজার ৭৯৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ১১ শতাংশ। ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৭ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৬ জন ও নারী ১১ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৩৫২ জন।

এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা এক হাজার ৮৬০ জন আর নারী ৪৯২ জন। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ৫৮০ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৯৩ হাজার ৬১৪ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫০ দশমিক ৯৩ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৮ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বয়স বিভাজনে ১১-২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১-৩০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৪ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১৪ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৬ জন এবং ৮১-৯০ বছরের ২ জন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ২৩ জন, চট্টগ্রামে ৬ জন, রাজশাহীতে ৪ জন, খুলনায় ৬ জন, বরিশালে ২ জন, রংপুরে ২ জন এবং সিলেটে ৪ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৪৩ জন এবং বাড়িতে ৪ জন মারা গেছেন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর    

১১ জুলাই করোনা আপডেট   

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৩০৫ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ২ হাজার ৬৮৬ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৮১ হাজার ১২৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬২৮ জন এবং মোট সুস্থ ৮৮ হাজার ৩৪ জন। শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ হাজার ৪৭৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১১ হাজার ১৯৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৬৮৬ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৮১ হাজার ১২৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক শূন্য শতাংশ।

ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩০ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ২৫ জন ও নারী ৫ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৩০৫ জন। এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা এক হাজার ৮২৪ জন আর নারী ৪৮১ জন।

তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬২৮ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৮৮ হাজার ৩৪ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪৮ দশমিক ৬০ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৭ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বয়স বিভাজনে ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ৮ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৩ জন এবং ৮১-৯০ বছরের একজন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১৩ জন, চট্টগ্রামে ১০ জন, রাজশাহীতে ৩ জন, খুলনায় ৩ জন এবং রংপুরে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ১৮ জন ও বাড়িতে ১১ জন মারা গেছেন। এছাড়া হাসপাতালে মৃত অবস্থায় এসেছেন একজন।

সোর্স দৈনিক যুগান্তর     

 

০৯ জুলাই করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)  আপডেট     

করোনা রোগী পৌনে ২ লাখ ছাড়াল

দেশে ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩ হাজার ৩৬০ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক লাখ ৭৫ হাজার ৪৯৪ জনে। বৃহস্পতিবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে এক অনলাইন ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতর এমন তথ্য জানিয়েছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক(প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা বলেন, এ সময়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এই বৈশ্বিক মহামারী দুই হাজার ২৩৮ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। আর গত একদিনে ১৫ হাজার ৬৩২টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। যাদের মধ্যে তিন হাজার ৩৬০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এখন পর্যন্ত ৯ লাখ চার হাজার ৭৮৪টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে জানিয়ে এই চিকিৎসক বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ৪৯ শতাংশ। আর এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৪০ শতাংশ।

গত একদিনে তিন হাজার ৭০৬ রোগী সেরে উঠেছেন বলেও জানিয়েছেন নাসিমা সুলতানা। তিনি বলেন, এ পযন্ত ৮৪ হাজার ৫৪৪ জন সুস্থ হয়েছেন। অর্থাৎ ৪৮ দশমিক ১৭ শতাংশ রোগী কোভিড-১৯ থেকে সেরে উঠেছেন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ৮ মার্চ, তা দেড় লাখ পেরিয়ে যায় গত ২ জুলাই। সেদিন ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ।

আর ১৮ মার্চ বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদফতর। ৫ জুলাই তা দুই হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।

সোর্সঃঃ দৈনিক যুগান্তর   

 

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)  আপডেট    

০৮ জুলাই যুগান্তর রিপোর্ট   

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এই বৈশ্বিক মহামারী দুই হাজার ১৯৭ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে।  বুধবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে এক অনলাইন ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতর এমন তথ্য জানিয়েছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক(প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা বলেন, দেশে গত একদিনে তিন হাজার ৪৮৯ জন নতুন করে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এতে সর্বমোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ ৭২ হাজার ১৩৪ জনে।

তিনি বলেন, শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ২৮ শতাংশ। যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে ৩৮ জন পুরুষ ও আটজন নারী। এ পর্যন্ত এক হাজার ৭৪১ জন পুরুষ ও ৪৫৬ নারী কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। শতাংশ হিসেবে ৭৯ দশমিক ২৪ শতাংশ পুরুষ ও ২০ দশমিক ৭৬ শতাংশ নারী। নাসিমা সুলতানা বলেন, ২৪ ঘণ্টায় ১৫ হাজার ৬৭২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আর আক্রান্তদের মধ্যে নতুন দুই হাজার ৭৩৬ জনসহ মোট ৮০ হাজার ৮৩৮ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার চার মাস পূর্ণ হয়েছে। কিন্তু প্রথম দিকে আক্রান্তের গতি ধীর থাকলেও দিনে দিনে তা তীব্র হচ্ছে। প্রথম তিন মাসের তুলনায় চতুর্থ মাসে সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়ে গেছে। মোট রোগীর ৫৯ শতাংশের বেশি শনাক্ত হয়েছে চতুর্থ মাসে। আর মোট মৃত্যুর প্রায় ৫৭ শতাংশ ছিল এই এক মাসে

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

 

৭ জুলাই করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)  আপডেট     

৭ জুলাই যুগান্তর রিপোর্ট   

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ১৫১ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন। এই সময়ে ৩ হাজার ২৭ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৬৮ হাজার ৬৪৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯৫৩ জন এবং মোট সুস্থ ৭৮ হাজার ১০২ জন।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৪৯১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৩ হাজার ১৭৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ২৭ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৬৮ হাজার ৬৪৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৯৮ শতাংশ।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৫ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৪৬ জন ও নারী ৯ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ১৫১ জন। এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা এক হাজার ৭০৩ আর নারী ৪৪৮ জন।

নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯৫৩ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৭৮ হাজার ১০২ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪৬ দশমিক ৩১ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৮ শতাংশ।

তিনি আরও জানান, বয়স বিভাজনে ১১-২০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৮ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ২১ জন এবং ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৬ জন ও ৮১-৯০ বছরের মধ্যে একজন মারা গেছেন।

নাসিমা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ২৭ জন, চট্টগ্রামে ১২ জন, রাজশাহীতে ২ জন, সিলেটে ২ জন, খুলনায় ৭ জন, রংপুরে ২ জন, বরিশালে ২ জন এবং ময়মনসিংহে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩৯ জন ও বাড়িতে ১৫ জন এবং মৃত অবস্থায় হাসপাতালে এসেছেন একজন

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

 

৬ জুলাই করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)  আপডেট     

৬ জুলাই যুগান্তর রিপোর্ট   

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৯৬ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ৩ হাজার ২০১ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৬৫ হাজার ৬১৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৫২৪ জন এবং মোট সুস্থ ৭৬ হাজার ১৪৯ জন।

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫ হাজার ২০১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৪ হাজার ২৪৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ২০১ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৬৫ হাজার ৬১৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৪৭ শতাংশ।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৪ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৩ জন ও নারী ১১ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৯৬ জন। এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা এক হাজার ৬৫৭ আর নারী ১৪৯ জন।

নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৫২৪ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৭৬ হাজার ৬২৫ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪৫ দশমিক ৮৯ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৭ শতাংশ।

তিনি আরও জানান, বয়স বিভাজনে ২১-৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১৫ জন এবং ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৬ জন ও ৮১-৯০ বছরের মধ্যে একজন মারা গেছেন।

নাসিমা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১৭ জন, চট্টগ্রামে ১১ জন, রাজশাহীতে ৩ জন, সিলেটে ৩ জন, খুলনায় ২ জন, রংপুরে ২ জন, বরিশালে ৪ জন এবং ময়মনসিংহে ২ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩৫ জন ও বাড়িতে ৯ জন মারা গেছেন

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

 

৫ জুলাই করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)  আপডেট   

৫ জুলাই যুগান্তর রিপোর্টঃ    

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৫২ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ২ হাজার ৭৩৮ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৬২ হাজার ৪১৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯০৪ জন এবং মোট সুস্থ ৭২ হাজার ৬২৫ জন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৯৬৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে পূর্বের নমুনাসহ ১৩ হাজার ৯৮৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৭৩৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৬২ হাজার ৪১৭ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৫৭ শতাংশ। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৫ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৭ জন ও নারী ১৮ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৫২ জন।

এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা এক হাজার ৬২৪ আর নারী ৪২৮ জন। নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯০৪ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৭২ হাজার ৬২৫ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪৪ দশমিক ৭২ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৬ শতাংশ।

তিনি আরও জানান, বয়স বিভাজনে ০-১০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ১৭ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ৯ জন এবং ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ১২ জন মারা গেছেন।

নাসিমা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১৯ জন, চট্টগ্রামে ১৩ জন, রাজশাহীতে একজন, সিলেটে ২ জন, খুলনায় ৬ জন, রংপুরে ৮ জন, বরিশালে ৫ জন এবং ময়মনসিংহে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৪১ জন ও বাড়িতে ১৪ জন মারা গেছেন।

তিনি বলেন, এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ৬০ জন, চট্টগ্রামে ৬৩৪ জন, রাজশাহীতে ১০২ জন, সিলেটে ৮৬ জন, রংপুরে ৬১ জন, খুলনায় ৮৮ জন, বরিশালে ৭২ জন এবং ময়মনসিংহে ৪৯ জন মারা গেছেন

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

 

৪ জুলাই করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)  আপডেট     

করোনা ভাইরাস জনিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এক হাজার ৯৯৭ জনের মৃত্যু হলো। এ ছাড়া দেশে নতুন করে আরো তিন হাজার ২৮৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট এক লাখ ৫৯ হাজার ৬৭৯ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।

আজ শনিবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আয়োজিত নিয়মিত বুলেটিনে অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান।

দেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী পাওয়ার কথা জানানো হয় এবং প্রথম মৃত্যু ঘটে গত ১৮ মার্চ। এরপর গত ১৪ এপ্রিল ৩৮তম দিনে করোনা রোগীর সংখ্যা এক হাজারে দাঁড়ায়। বর্তমানে দেশে এক লাখ ৫৯ হাজার ৬৭৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৪টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করা হয়েছে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা আজ শনিবার সকাল পর্যন্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক কোটি ১১ লাখ ৯৭ হাজার ২৮১ জনে। শুক্রবার আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি আট লাখের কিছু বেশি থাকলেও একদিনের ব্যবধানে তা বেড়েছে দুই লাখের বেশি।

বিশ্বের করোনাভাইরাসের পরিসংখ্যান জানার ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, শনিবার সকাল পর্যন্ত করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ লাখ ২৯ হাজার ১৯৭ জনে এবং প্রাণঘাতী এ রোগ থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬৩ লাখের বেশি মানুষ।

সোর্সঃ NTV 

০৩ জুলাই করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) আপডেট     

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১ হাজার ৯৬৮ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ৩ হাজার ১১৪ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৫৬ হাজার ৩৯১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬০৬ জন এবং মোট সুস্থ ৬৮ হাজার ৪৮ জন।

শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ঘণ্টায় ১৪ হাজার ৭৮১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে পূর্বের নমুনাসহ ১৪ হাজার ৬৫০টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ১১৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৫৬ হাজার ৩৯১ জন। শনাক্তের হার ২১ দশমিক ২৬ শতাংশ।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৪২ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩২ জন ও নারী ১০ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৯৬৮জন।

নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬০৬ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৬৮ হাজার ৪৮ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪৩ দশমিক ৯১ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৬ শতাংশ।

তিনি আরও জানান, বয়স বিভাজনে ১১-২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১-৩০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৭ মারা এবং ৮১-৯০ বছরের মধ্যে ৩ জন মারা গেছেন।

করোনায় দেশে এ পর্যন্ত যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে ০-১০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ১১-২০ বছরের মধ্যে ২৩ জন, ২১-৩০ বছরের মধ্যে ৭০ জন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ১৪৭ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ২৪০ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ৫৭১ জন এবং ষাটোর্ধ্ব বয়সের ৮৫০ জন।

নাসিমা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১৮ জন, চট্টগ্রামে ১০ জন, রাজশাহীতে ৩ জন, রংপুরে ৪ জন, সিলেটে ৩ জন, খুলনায় ৩ জন, বরিশালে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩১ জন ও বাড়িতে ১১ জন মারা গেছেন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

০২ জুলাই করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) আপডেট     

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। মহামারীতে এ পর্যন্ত মারা গেছেন এক হাজার ৯২৬ জন। বৃহস্পতিবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে হালনাগাদ তথ্য দিতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অনলাইন সংবাদ ব্রিফিংয়ে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, এ সময়ে নতুন করে চার হাজার ১৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছে এক লাখ ৫৩ হাজার ২৭৭ জন।

তিনি বলেন, ২৪ ঘণ্টায় ১৭ হাজার ৪৪৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আর পরীক্ষা করা হয়েছে ১৮ হাজার ৩৬২টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে আট লাখ দুই হাজার ৬৯৭টি। তিনি বলেন, আজ ৭০টি পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আরেকটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ পরীক্ষাগারের সঙ্গে সংযুক্ত হয়েছে।

‘গত এক দিনে সুস্থ হয়েছেন চার হাজার ৩৩৪জন। আর এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৬৬ হাজার ৪৪২ জন। শনাক্তের বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪৩.৩৫ শতাংশ।’ তিনি আরও বলেন, শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ২৬ শতাংশ। মৃতদের মধ্যে পুরুষ ৩২ জন, আর নারী ছয় জন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

 

০১ জুলাই করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)  আপডেট 

যুগান্তর রিপোর্ট ০১ জুলাই  

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে সর্বমোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল এক হাজার ৮৮৮ জনে।

বুধবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, গত একদিনে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিন হাজার ৭৭৫ জন। এ নিয়ে সর্বমোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ ৪৯ হাজার ২৫৮ জনে।

তিনি আরও বলেন, ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ৪৮৪ জন। সব মিলিয়ে সুস্থ ৬২ হাজার ১০২ জন। নতুন করে মারা যাওয়া ৪১ জনের মধ্যে ৩৮ জন পুরুষ ও ৩ জন নারী।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

 

সব রেকর্ড ছাপিয়ে করোনায় একদিনে ৬৪ মৃত্যু

  যুগান্তর রিপোর্ট ৩০ জুন ২০২০

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে রেকর্ড ৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১ হাজার ৮৪৭ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন। এই সময়ে ৩ হাজার ৬৮২ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৪৫ হাজার ৪৮৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৪৪ জন এবং মোট সুস্থ ৫৯ হাজার ৬২৪ জন।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮ হাজার ৮৬৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে পূর্বের নমুনাসহ ১৮ হাজার ৪২৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ৬৮২ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৪৫ হাজার ৪৮৩ জন। শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৯৮ শতাংশ।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৪ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৫২ জন ও নারী ১২ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৮৪৭ জন।  নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৪৪ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৫৯ হাজার ৬২৪ জন।

শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৯৮ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৭ শতাংশ। তিনি আরও জানান, বয়স বিভাজনে ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ২১ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১৬ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ১১ মারা এবং ৮১-৯০ বছরের মধ্যে ৩ জন মারা গেছেন।

নাসিমা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ঢাকা বিভাগে ৩১ জন, চট্টগ্রামে ১২ জন, রাজশাহীতে ৭ জন, সিলেটে ২ জন, খুলনায় ৭ জন, বরিশালে ২ জন এবং ময়মনসিংহে ২ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৫১ জন ও বাড়িতে ১৩ জন মারা গেছেন। মৃত অবস্থায় হাসপাতালে এসেছেন একজন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

২৯ জুন করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)  আপডেট 

যুগান্তর রিপোর্ট

করোনাভাইরাসে দেশে আরও ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১ হাজার ৭৮৩ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ৪ হাজার ১৪ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৪১ হাজার ৮০১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৫৩ জন এবং মোট সুস্থ ৫৭ হাজার ৭৮০ জন।

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ঘণ্টায় ১৪ হাজার ৪১৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে পূর্বের নমুনাসহ ১৭ হাজার ৮৩৭টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪ হাজার ১৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৪১ হাজার ৮০১ জন। শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৫০ শতাংশ। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৫ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৬ জন ও নারী ৯ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৭৮৩ জন।

নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৫৩ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৫৭ হাজার ৭৮০ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৭৫ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৬ শতাংশ।

তিনি আরও জানান, বয়স বিভাজনে ২১-৩০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১৪ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৬ মারা এবং ৮১-৯০ বছরের মধ্যে একজন এবং ৯১-১০০ বছরের মধ্যে একজন মারা গেছেন।

নাসিমা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ঢাকা বিভাগে ২২ জন, চট্টগ্রামে ১০ জন, রাজশাহীতে একজন, সিলেটে ৩ জন, খুলনায় ৫ জন, বরিশালে ৩ জন এবং ময়মনসিংহে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩০ জন ও বাড়িতে ১৪ জন মারা গেছেন। মৃত অবস্থায় হাসপাতালে এসেছেন একজন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

২৮ জুন করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯ ) আপডেট 

করোনায় আরও ৪৩ জনের প্রাণহানি, নতুন শনাক্ত ৩৮০৯ যুগান্তর রিপোর্ট

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১ হাজার ৭৩৮ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন। এই সময়ে ৩ হাজার ৮০৯ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৩৭ হাজার ৭৮৭ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪০৯ জন এবং মোট সুস্থ ৫৫ হাজার ৭২৭ জন।

শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ঘণ্টায় ১৭ হাজার ৩৪টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে পূর্বের নমুনাসহ ১৮ হাজার ৯৯টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ৮০৯ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৩৭ হাজার ৭৮৭ জন। শনাক্তের হার ২১ দশমিক ০৫ শতাংশ।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৩ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩১ জন ও নারী ১৪ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৭৩৮ জন।

নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪০৯ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৫৫ হাজার ৭২৭ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৪৪ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৬ শতাংশ। তিনি আরও জানান, বয়স বিভাজনে ২১-৩০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৭ মারা এবং ৮১-৯০ বছরের মধ্যে একজন মারা গেছেন।

নাসিমা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ঢাকা বিভাগে ২১ জন, চট্টগ্রামে ১০ জন, রাজশাহীতে ২ জন, সিলেটে ৩ জন, খুলনায় ৩ জন, রংপুরে একজন, বরিশালে ৩ জন এবং ময়মনসিংহে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩০ জন ও বাড়িতে ১২ জন মারা গেছেন। মৃত অবস্থায় হাসপাতালে এসেছেন একজন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

২৭ জুন করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)  আপডেট  

দেশে করোনায় আরও ৩৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৫০৪

  যুগান্তর রিপোর্ট

 ২৭ জুন ২০২০

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১ হাজার ৬৯৫ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ৩ হাজার ৫০৪ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ৩৩ হাজার ৯৭৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ১৮৫ জন এবং মোট সুস্থ ৫৪ হাজার ৩১৮ জন।

শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ঘণ্টায় ১৫ হাজার ৫৯টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে পূর্বের নমুনাসহ ১৫ হাজার ১৫৭টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ৫০৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৩৩ হাজার ৯৭৮ জন। শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ১২ শতাংশ।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৪ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩২ জন ও নারী ২ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৬৯৫ জন।  নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ১৮৫ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৫৪ হাজার ৩১৮ জন।

শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৫৪ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৭ শতাংশ।

তিনি আরও জানান, বয়স বিভাজনে ২১-৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১৩ জন এবং ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৭ মারা গেছেন।

নাসিমা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ঢাকা বিভাগে ১৩ জন, চট্টগ্রামে ১০ জন, সিলেটে ৪ জন, রাজশাহীতে ৪ জন, খুলনায় একজন এবং রংপুরে ২ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩০ জন ও বাড়িতে ৪ জন মারা গেছেন।

 

করোনা ভাইরাস( কোভিড -১৯) আপডেট

২৫ জুন  ,  ২০২০

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১,৮২৯ জন। গতকাল বুধবার সুস্থ হয়েছিলেন ২,০৩১ জন। এনিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ৫১,৪৯৫ জন। এছাড়া একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৯ জন। গতকাল মারা গেছেন ৩৭ জন। এ নিয়ে দেশে মোট মারা গেছেন ১,৬২১ জন। 

আজ বুধবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।অনলাইন বুলেটিনে বলা হয়, ৬৬টি পরীক্ষাগারে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭,৯৯৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে আরও ৩,৯৪৬ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১,২৬,৬০৬ জন। 

সোর্সঃ দৈনিক কালের কন্ঠ     

করোনা ভাইরাস ( কোভিড-১৯) আপডেট  

  রিপোর্ট  ২৪ জুন ২০২০

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১ হাজার ৫৮২ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন। এই সময়ে ৩ হাজার ৪৬২ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ২২ হাজার হাজার ৬৬০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৩১ জন এবং মোট সুস্থ ৪৯ হাজার ৬৬৬ জন।

বুধবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ঘণ্টায় ১৭ হাজার ২৪৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৬ হাজার ৪৩৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ৪৬২ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ২২ হাজার হাজার ৬৬০ জন। শনাক্তের হার ২১ দশমিক ০৭ শতাংশ।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ২৮ জন ও নারী ৯ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৫৮২ জন।  নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৩১ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৪৯ হাজার ৬৬৬ জন।

শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৪৯ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৯ শতাংশ।  তিনি আরও জানান, বয়স বিভাজনে ১১-২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১-৩০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৩০-৪০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ৯ জন এবং ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৮ মারা গেছেন।

নাসিমা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ঢাকা বিভাগে ১০ জন, চট্টগ্রামে ৯ জন, রাজশাহীতে ৬ জন, খুলনায় ৭ জন, ময়মনসিংহে ৩ জন, বরিশালে একজন এবং রংপুরে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৩৪ জন ও বাড়িতে ৩ জন মারা গেছেন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর   

করোনা ভাইরাস  ( কোভিড- ১৯) আপডেট ২৩ জুন

করোনা কেড়ে নিল আরও ৪৩ প্রাণ, শনাক্ত ৩৪১২

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৩ জুন ২০২০, ০২:৩৬ 

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১ হাজার ৫৪৫ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ৩ হাজার ৪১২ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ১৯ হাজার হাজার ১৯৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৮৮০ জন এবং মোট সুস্থ ৪৭ হাজার ৬৩৫ জন।  মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ঘণ্টায় ১৭ হাজার ৫৬৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৬ হাজার ২৯২টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ৪১২ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ১৯ হাজার হাজার ১৮৯ জন। শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৯৪ শতাংশ।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৩ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৮ জন ও নারী ৫ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৫৪৫ জন।

নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৮৮০ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৪৭ হাজার ৬৩৫ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৩৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩০ শতাংশ।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর  

করোনা ভাইরাস ( কোভিড -১৯)  আপডেট  

২২ জুন ২০২০

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১ হাজার ৫০২ জন কোভিড রোগী মারা গেলেন।

এই সময়ে ৩ হাজার ৪৮০ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ১ লাখ ১৫ হাজার হাজার ৭৮৬ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৬৭৮ জন এবং মোট সুস্থ ৪৬ হাজার ৭৫৫ জন।

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ঘণ্টায় ১৬ হাজার ২৮৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৫ হাজার ৫৫৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ৪৮০ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ১৫ হাজার হাজার ৭৮৬ জন। শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৩৭ শতাংশ।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৮ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৩ জন ও নারী ৫ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৫০২ জন।
মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩০ শতাংশ।

নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৬৭৮ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ৪৬ হাজার ৭৫৫ জন।

শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৩৮ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩০ শতাংশ।

তিনি আরও জানান, বয়স বিভাজনে ১১-২০ বছরের মধ্যে একজন, ২০-৩০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৬ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৩ জন এবং ৮১-৯০ বছরের মধ্যে একজন মারা গেছেন।

নাসিমা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ঢাকা বিভাগে ১৫ জন, চট্টগ্রামে ১২ জন, রাজশাহীতে ২ জন, খুলনায় ২ জন, ময়মনসিংহে ২ জন, বরিশালে ৪ জন, সিলেটে একজন মৃত্যুবরণ করেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ২৫ জন ও বাড়িতে ১২ জন মারা গেছেন। মৃত অবস্থায় হাসপাতালে এসেছেন একজন।

সোর্সঃ দৈনিক যুগান্তর  

  • করোনা ভাইরাস (কোভিড -১৯)  আপডেট

  • কালের কণ্ঠ অনলাইন

  • ২০ জুন,

  • বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৭ জন। এনিয়ে মোট মারা গেলেন ১,৪২৫ জন। এছাড়া একই সময়ে আরও ৩,২৪০ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১,০৮,৭৭৫ জন।

    আজ শনিবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

    অনলাইন বুলেটিনে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪,০৩১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ১,০৪৮ জন। এনিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৪৩,৯৯৩ জন।

  • সোর্সঃ দৈনিক কালের কন্ঠ   

  • করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) আপডেট

    📅 #১৯_জুন_২০২০
    🇧🇩 বাংলাদেশ (গত ২৪ ঘণ্টায় )
    💉 নমুনা পরীক্ষা:  ১৫,০৪৫
    🏥 করোনা শনাক্ত:  ৩,২৪৩
    😢 নতুন মৃত্যু: ৪৫
    ✅ নতুন সুস্থ: ২,৭৮১
    ***********
    🇧🇩 বাংলাদেশ  (সর্বমোট )
    💉 মোট নমুনা পরীক্ষা:  ৫,৮৫,৫৮৪
    🚑 মোট আক্রান্ত:  ১,০৫,৫৩৫
    😟 মোট মৃত্যু:  ১,৩৮৮
    ✅ মোট সুস্থ:  ৪২,৯৪৫
    ***********
    🌏 বিশ্বব্যাপী (গত ২৪ ঘণ্টায়)
    🆕 নতুন আক্রান্ত: 165,880+
    🆕 নতুন মৃত্যু: 6,212+

    🔝 সর্বোচ্চ মৃত্যু (গত ২৪ ঘণ্টায়)
    🔴 Brazil: 1,204+
    🔴 Mexico: 770+
    ***********
    🔝 সর্বোচ্চ মৃত্যু ( সর্বমোট )
    🔶 USA: 120,688
    🔶Brazil: 47,869
    🔶Bangladesh: Worldwide Position- 30

    🔝 সর্বোচ্চ আক্রান্ত সর্বমোট )
    💊 USA: 2,263,749
    💊 Brazil: 983,359
    💊 Bangladesh: Worldwide Position- 17

    🌏 বিশ্বব্যাপী ( সর্বমোট )
    🚩 মোট আক্রান্ত: 8,595,736
    🔴 মোট মৃত্যু: 456,664
    💧 মোট সুস্থ: 4,546,893

    ℹ️ উৎসঃ স্বাস্থ্য অধিপ্তর, ওয়ার্ল্ডোমিটার 

১৮ জুন, ২০২০ 

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৮ জন। এনিয়ে মোট মারা গেলেন এক হাজার ৩৪৩ জন। এছাড়া একই সময়ে আরও তিন হাজার ৮০৩ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ দুই হাজার ২৯২ জন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

অনলাইন বুলেটিনে বলা হয়, অনলাইন বুলেটিনে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬ হাজার ২৫৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৯৭৫ জন। এনিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ৪০ হাজার ১৬৪ জন।

সোর্স ঃ দৈনিক কালের কন্ঠ   

📅 #১৮_জুন_২০২০
🇧🇩 বাংলাদেশ (গত ২৪ ঘণ্টায় )
💉 নমুনা পরীক্ষা:  ১৬,২৫৯
🏥 করোনা শনাক্ত: ৩,৮০৩
😢 নতুন মৃত্যু: ৩৮
✅ নতুন সুস্থ: ১,৯৭৫
***********
🇧🇩 বাংলাদেশ  (সর্বমোট )
💉 মোট নমুনা পরীক্ষা:  ৫,৭০,৫০৩
🚑 মোট আক্রান্ত:  ১,০২,২৯২
😟 মোট মৃত্যু:  ১,৩৪৩
✅ মোট সুস্থ: ৪০,১৬৪
***********
🌏 বিশ্বব্যাপী (গত ২৪ ঘণ্টায়)
🆕 নতুন আক্রান্ত: 146,111+
🆕 নতুন মৃত্যু: 5,264+

🔝 সর্বোচ্চ মৃত্যু (গত ২৪ ঘণ্টায়)
🔴 Brazil: 1,209+
🔴 USA: 809+
***********
🔝 সর্বোচ্চ মৃত্যু ( সর্বমোট )
🔶 USA: 119,941
🔶Brazil: 46,665
🔶Bangladesh: Worldwide Position- 30

🔝 সর্বোচ্চ আক্রান্ত সর্বমোট )
💊 USA: 2,235,727
💊 Brazil: 960,309
💊 Bangladesh: Worldwide Position- 17

🌏 বিশ্বব্যাপী ( সর্বমোট )
🚩 মোট আক্রান্ত: 8,429,856
🔴 মোট মৃত্যু: 450,452
💧 মোট সুস্থ: 4,412,623

ℹ️ উৎসঃ স্বাস্থ্য অধিপ্তর, ওয়ার্ল্ডোমিটার 

 

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) আপডেট: গত ২৪ ঘণ্টায়

📅 #১৭_জুন_২০২০

🇧🇩 Bangladesh
💉 নমুনা পরীক্ষা:  ১৭,৫২৭
🏥 করোনা শনাক্ত:  ৪,০০৮
😢 নতুন মৃত্যু: ৪৩
✅ নতুন সুস্থ: ১,৯২৫
***********
💉 মোট নমুনা পরীক্ষা:  ৫,৫১,২৪৪
🚑 মোট আক্রান্ত:  ৯৮,৪৮৯
😟 মোট মৃত্যু:  ১,৩০৫
✅ মোট সুস্থ: ৩৮,১৮৯
***********
🌏 Worldwide ( Last 24 Hrs)
🆕 New Cases: 1,65,931+
🆕 New Death: 7,794+

🔝 Highest Death ( Last 24 Hrs)
🔴 India: 2,006+
🔴 Brazil: 1,338+

🔝 Highest Death (Total)
🔶 USA: 119,132
🔶Brazil: 45,456
🔶Bangladesh: Worldwide Position- 31

🔝 Highest Cases (Total)
💊 USA: 2,208,402
💊 Brazil: 928,834
💊 Bangladesh: Worldwide Position- 18

🌏 Worldwide Total
🚩 Cases: 8,274,598
🔴 Deaths: 446,390
💧 Recovered: 4,333,695

ℹ️ উৎসঃ স্বাস্থ্য অধিপ্তর, ওয়ার্ল্ডোমিটার 

 

📅 #১৬_জুন_২০২০


🇧🇩 Bangladesh
💉 নমুনা পরীক্ষা:  ১৭,৩১৪
🏥 করোনা শনাক্ত:  ৩,৮৬২
😢 নতুন মৃত্যু: ৫৩
✅ নতুন সুস্থ: ২,২৩৭
***********
💉 মোট নমুনা পরীক্ষা: ৫,৩৩,৭১৭
🚑 মোট আক্রান্ত:  ৯৪,৪৮১
😟 মোট মৃত্যু: ১,২৬২
✅ মোট সুস্থ: ৩৬,২৬৪
***********
🌏 Worldwide 
🆕 New Cases: 1,48,286+
🆕 New Death: 4,299+

🔝 Highest Death (Total)
🔶 USA: 118,283
🔶Brazil: 44,118
🔶Bangladesh: Worldwide Position- 31

🔝 Highest Cases (Total)
💊 USA: 2,182,950
💊 Brazil: 891,556
💊 Bangladesh: Worldwide Position- 18

🌏 Worldwide Total
🚩 Cases: 8,128,606
🔴 Deaths: 439,428
💧 Recovered: 4,243,155

ℹ️ উৎসঃ স্বাস্থ্য অধিপ্তর, ওয়ার্ল্ডোমিটার 


📅 #১৫_জুন_২০২০
🇧🇩 Bangladesh
💉 নমুনা পরীক্ষা:  ১৫,০৩৮
🏥 করোনা শনাক্ত: ৩,০৯৯
😢 নতুন মৃত্যু: ৩৮
✅ নতুন সুস্থ: ১৫,২৯৭
***********
💉 মোট নমুনা পরীক্ষা: ৫,১৬,৫০৩
🚑 মোট আক্রান্ত:  ৯০,৬১৯
😟 মোট মৃত্যু: ১,২০৯
✅ মোট সুস্থ: ৩৪,০২৭
***********
🌏 Worldwide 
🆕 New Cases: 1,47,280+
🆕 New Death: 4,281+

🔝 Highest Death (Total)
🔶 USA: 117,858
🔶Brazil: 43,389
🔶Bangladesh: Worldwide Position- 31

🔝 Highest Cases (Total)
💊 USA: 2,162,228
💊 Brazil: 867,882
💊 Bangladesh: Worldwide Position- 18

🌏 Worldwide Total
🚩 Cases: 8,007,804
🔴 Deaths: 435,855
💧 Recovered: 4,135,274

ℹ️ উৎসঃ স্বাস্থ্য অধিপ্তর, ওয়ার্ল্ডোমিটার 

 

#১৪_জুন_২০২০
🇧🇩 Bangladesh
💉 নমুনা পরীক্ষা: ১৪,৫০৫
🏥 করোনা শনাক্ত: ৩,১৪১
😢 নতুন মৃত্যু: ৩২
💊 নতুন সুস্থ: ৯০৩
***********
💉 মোট নমুনা পরীক্ষা: ৫,০১,৪৬৫
🚑 মোট আক্রান্ত:  ৮৭,৫২০
😟 মোট মৃত্যু: ১,১৭১
🏠 মোট সুস্থ: ১৮,৭৩০
************
🔝 Highest Death (Total)
🩸 USA: 117,527
🩸 Brazil: 42,791
🩸 Bangladesh: 1,171 (Worldwide Position- 31)

🔝 Highest Cases (Total)
🤒 USA: 2,142,224
🤒Brazil: 850,796
🤒 Bangladesh: 87,520 (Worldwide Position- 18)

🌏Worldwide (Total)
🚩 Cases: 7,884,904
🔴 Deaths: 432,638
💧 Recovered: 4,050,004

ℹ️ উৎসঃ স্বাস্থ্য অধিপ্তর, ওয়ার্ল্ডোমিটার

আবেদনের শেষ তারিখঃ na

লোকেশনঃ বাংলাদেশ

Source: দৈনিক যুগান্তর