পৃথিবীর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি

পৃথিবীর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি

Total Views: 612

সব ধরনের  চাকরির  প্রস্তুতি ও অনলাইনে পরীক্ষার মাধ্যমে আপনার মেধা যাচাই করার জন্যে আছে বিগত বছরের (bcs|bank|gov.job|MBA|NTRCA|PSC|Primary) এর ১০০০+ পরীক্ষার প্রশ্ন ও উত্তর। 
ভিজিট করুন
লিঙ্ক:  http://bdalljob.com/

পৃথিবীর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি: পার্ট ০১

১. পৃথিবীর বয়স: ৪৬০ কোটি বছর (৪.৬ বিলিয়ন বছর)।
২. আয়তন: ৫১ কোটি ৬৬ হাজার বর্গকিমি।
৩. স্থলভাগের আয়তন: ১৪ কোটি ৮৬ লাখ ৪৭ হাজার বর্গকিমি (মোট আয়তনের ২৯.১%)।
৪. জলভাগের আয়তন: ৩৬ কোটি ১৪ লাখ ১৯ হাজার বর্গকিমি (মোট আয়তনের ৭০.৯%)।

৫. সমুদ্র এলাকার আয়তন: ৩৩ কোটি ৫২ লাখ ৫৮ হাজার বর্গকিমি।
৬. উপকূলীয় রেখার আয়তন: ৩ লাখ ৫৬ হাজার বর্গকিমি।
৭. পরিধি:
* নিরক্ষরেখা বরাবর ৪০,০৬৬ কিমি।
* মেরুরেখা বরাবর ৩৯,৯৯২ কিমি।
৮. ব্যাস:
- নিরক্ষরেখা বরাবর ১২,৭৫৩ কিমি।
- মেরুরেখা বরাবর ৬,৩৫৫ কিমি।
৯. ব্যাসার্ধ:
- নিরক্ষ রেখা থেকে ৬,৩৭৬ কিমি।
- মেরুরেখা থেকে ৬,৩৫৫ কিমি।
১০. সর্বোচ্চ বিন্দু: মাউন্ট এভারেষ্ট, উচ্চতা ৮৮৫০ মিটার।
১১. সর্বনিম্ন বিন্দু: বেন্টলে সাবগ্ল্যাসিয়াল ট্রেঞ্চ, যা সমুদ্র সমতল থেকে ২৫৫৫ মিটার গভীরে।
সামুদ্রিক এলাকায় সর্বনিম্ন বিন্দু প্রশান্ত মহাসাগরের মারিয়ানা ট্রেঞ্চ, যা ১০,৯২৪ মিটার বা ৩৫,৮৪০ ফুট গভীর।
১২. স্থলসীমা: ২ লাখ ৫০ হাজার ৪৭২ কিমি।
১৩. সর্বাধিক সীমান-বেষ্টিত দেশ: দুটি; চীন ও রাশিয়া (উভয় দেশ ১৪টি দেশ কর্তৃক সীমানা বেষ্টিত)।
১৪. পানির প্রকারভেদ: দুই প্রকার (৯৭% লবণাক্ত, ৩% সুপেয়।)
১৫. সূর্যের চারদিকে ঘুরে আসতে সময় লাগে: ৩৬৫ দিন ৫ ঘন্টা ৪৮ মিনিট ৪৭ সেকেন্ড।
১৬. নিজ অক্ষের উপর একবার আবর্তন করতে সময় লাগে: ২৩ ঘন্টা ৫৬ মিনিট।
১৭. আবর্তনের গতিবেগ: ৬৬,৭০০ মাইল/ঘন্টা বা ১,০৭,৩২০ কিমি/ঘন্টা।
১৮. সূর্য থেকে দূরত্ব: ১৪ কোটি ৯৫ লক্ষ কিমি (প্রায়)।
১৯. একমাত্র উপগ্রহ: চাঁদ।
২০. উত্তর গোলার্ধে সবচেয়ে বড় দিন: ২১জুন।
২১. দক্ষিণ গোলার্ধে সবচেয়ে বড় দিন: ২২ ডিসেম্বর।
২২. সর্বত্র দিনরাত্রি সমান: ২১ মার্চ ও ২৩ সেপ্টেম্বর।
২৩. গঠন: লোহা ৩৫%, অক্সিজেন ২৮%, ম্যাগনেসিয়াম ১৭%, সিলিকন ১৩%, সালফার ২.৭%, নিকেল ২.৭%, ক্যালসিয়াম ১.২% ও এলুমিনিয়াম ০.৪%।
২৪. আয়তনে বিশ্বের বৃহত্তম দেশ: রাশিয়া; ১,৭০,৭৫,২০০ বর্গকিমি বা ৬৫,৯২,৭৬৮.৮৭ বর্গমাইল।
২৫. বিশ্বের বর্তমান জনসংখ্যাঃ ৭.৫৯৪ বিলিয়ন (২০১৮)।

২৬. জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী বিশ্বের বর্তমান জনসংখ্যা আনুমানিক ৭৮২ কোটি।
২৭. জনসংখ্যা বৃদ্ধির হারঃ ১.১% (২০১৬-১৮)। [২০১৮ বিশ্ব রিপোর্ট অনুযায়ী]
২৮. জনসংখ্যার বৃহত্তম দেশ: চীন, ১৪৩ কোটি ৩৭ লাখ (ইউএনএফপিএ ২০১৯)।

পৃথিবীর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি: পার্ট ০২

২৯. আয়তনে বৃহত্তম মুসলিম দেশ: কাজাখস্থান; ২৭,১৭,৩০০ বর্গকিমি।
৩০. জনসংখ্যায় বৃহত্তম মুসলিম দেশ: ইন্দোনেশিয়া।
৩১. আয়তন ও জনসংখ্যায় ক্ষুদ্রতম দেশ: ভ্যাটিক্যান; আয়তন ০.৪৪ বর্গকিমি বা ০.১৭ বর্গমাইল এবং লোকসংখ্যা ৭৯৯ জন (মার্চ ২০১৯)।
৩২. মহাসাগর: ৫টি; প্রশান্ত মহাসাগর, আটলান্টিক মহাসাগর, ভারত মহাসাগর, দক্ষিণ বা এন্টার্কটিকা মাহসাগর ও উত্তর বা আর্কটিক মহাসাগর।
৩৩. বৃহত্তম মহাসাগর: প্রশান্ত মহাসাগর।
৩৪. গভীরতম মহাসাগর: প্রশান্ত মহাসাগর।
৩৫. মহাসাগরের সর্বোচ্চ গভীর খাত: প্রশান্ত মহাসাগরের মারিয়ানা ট্রেঞ্চ।
৩৬. গভীরতম সাগর: ক্যারিবিয়ান সাগর, যার গভীরতা ২২৭৮৮ ফুট বা ৬৯৪৬ মিটার।

৩৭. বৃহত্তম সাগর: দক্ষিণ চীন সাগর (আয়তন ২৯,৭৪,৬০০ বর্গকিমি)।
৩৮. দীর্ঘতম নদী: নীল নদ, আফ্রিকা, দৈর্ঘ্য ৬৮২৫ কিমি।
৩৯. উচ্চতম দ্বীপ: নিউগিনি (সমুদ্র সমতল থেকে যার উচ্চতা ৫০৩০ মিটার বা ১৬৫০০ ফুট)।
৪০. বৃহত্তম হ্রদ দ্বীপ: ম্যানিটুলিন, (হিউন হ্রদ, অন্টারিও; আয়তন ১০৬৮ বর্গমাইল বা ২৭৬৬ বর্গকিমি)।
৪১. বৃহত্তম হ্রদ: কাস্পিয়ান, অবস্থান এশিয়া-ইউরোপ; আয়তন ৩,৭১,০০০ বর্গকিমি।
৪২. গভীরতম হ্রদ: বৈকাল হ্রদ, রুশ ফেডারেশন; গভীরতা ৫,৩১৫ ফুট বা ১৬২০ মিটার।
৪৩. মহাদেশ: ৭টি; এশিয়া, আফ্রিকা, ইউরোপ, উত্তর আমেরিকা, দক্ষিণ আমেরিকা, ওশেনিয়া এবং আন্টার্কটিকা।
৪৪. আয়তনের বৃহত্তম মহাদেশ: এশিয়া; ৪ কোটি ৪৫ লাখ ৭৯ হাজার বর্গকিমি।
৪৫. লোকসংখ্যায় বৃহত্তম মহাদেশ: এশিয়া; ৪১৬ কোটি ৪২ লাখ [UNFPA ২০১৯]।
৪৬. জনশূণ্য মহাদেশ: এন্টার্কটিকা।
৪৭. বিশ্বে মোট দেশ: ২৩৩টি।
৪৮. মোট রাষ্ট্র ২০৪টি।
৪৯. মোট স্বাধীন রাষ্ট্র- ১৯৩টি (জাতিসংঘ স্বীকৃত রাষ্ট্র) ২টি পর্যবেক্ষক রাষ্ট্র, এবং ১১টি অন্যান্য রাষ্ট্রসমূহ।
৫০. বিশ্বে স্বাধীন দেশের সংখ্যা- ১৯৫ টি (সর্বশেষ: দক্ষিণ সুদান, ৯ জুলাই ২০১১)।
৫১. স্বাধীন ও সার্বভৌম দেশ: ১৯৪ টি (কসভো স্বাধীন কিন্তু সার্বভৌম নয়)।
৫২. জাতিসংঘের সদস্য দেশ: ১৯৩টি (কসভো ও ভ্যাটিকান জাতিসংঘের সদস্য নয়)।
৫৩. গনতান্ত্রিক দেশ: ১২২টি।
৫৪. এলডিসিভুক্ত দেশ: ৪৯।
৫৫. পৃথিবীর ২টি দেশ এশিয়া ও ইউরোপ দুই মাহদেশে অবস্থিত- রাশিয়া ও তুরস্ক।
৫৬. পৃথিবীর কোন শহর বা নগর ২টি মাহদেশে অবস্থিত - ইস্তাম্বুল (তুরস্ক)।
৫৭. বিশ্বে ২টি দেশ জাতিসংঘের সদস্য নয়- ভ্যাটিকান সিটি ও কসভো।

৫৮. পৃথিবীর ছিদ্রায়িত রাষ্ট্র-ইতালি। কারণ এর মধ্যে ভ্যাটিকান সিটি ও সানম্যারিনো অবস্থিত।
৫৯. পৃথিবীর একমাত্র ইহুদি রাষ্ট্র ইসরাইল (এটি মধ্যপ্রাচ্যর ক্যান্সার নামেও পরিচিত)।

 

পৃথিবীর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি: পার্ট ০৩

৬০. ইউরোপের মুসলিম দেশগুলো: বসনিয়া- হার্জেগোভিনা, তুরস্ক, আলবেনিয়া ও কসভো।
৬১. সর্বোচ্চ সংখ্যক স্বাধীন দেশ রয়েছে: আফ্রিকা মহাদেশে (৫৩টি)।
৬২. প্রধান ধর্ম: ইসলাম, খ্রিষ্ট, বৌদ্ধ, হিন্দু প্রভৃতি।
৬৩. উত্তরের নগরী: হ্যামারফাষ্ট (নরওয়ে)।
৬৪. দক্ষিণের নগরী: পুয়ের্তো উইলিয়াম (চিলি)।
৬৫. প্রাচীনতম দেশ: সানমারিনো; ৩০১ খ্রিষ্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত।
৬৬. উচ্চতম রাজধানী: লাপাজ।
৬৭. সর্বাধিক রাষ্ট্রভাষার দেশ: ভারত।
৬৮. পারমাণবিক শক্তিধর রাষ্ট্র: ৮টি (যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ব্রিটেন, ফ্রান্স, চীন, ভারত, পাকিস্তান ও উত্তর কোরিয়া)।
৬৯. উচ্চতম পর্বতশৃঙ্গ; মাউন্ট এভারেষ্ট, চীন নেপাল; ৮৮৫০ মিটার বা ২৯,০৩৫ ফুট।

৭০. ঘনবসতিপূর্ণ দেশ: মোনাকো; ১৬,২০৫ জন প্রতি বর্গকিমি।
৭১. কম ঘনবসতিপূর্ণ দেশ: মঙ্গোলিয়া ও নামিবিয়া ২ জন প্রতি বর্গকিমি।
৭২. জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার: ১.৭%। [UNFPA 2019]।
৭৩. মহিলা প্রতি উর্বরতার হার: ২.৫৪ শতাংশ।
৭৪. মাথাপিছু আয়: ৯,৯৭২ মার্কিন ডলার।
৭৫. সর্বোচ্চ মুদ্রাস্ফিতির দেশ: জিম্বাবুয়ে।
৭৬. সর্বাধিক জনসংখ্যার বৃদ্ধিহারের দেশ: কাতার, ১১.৩৭% [UNFPA 2019]।
৭৭. সর্বাধিক শিশু মৃত্যুহারের দেশ: সিয়েরা লিওন, প্রতি হাজার জীবিত জনে ২৬২ জন মরে।
৭৮. সর্বনিম্ন শিশু মৃত্যুহারের দেশ: সিঙ্গাপুর, সুইডেন, লুক্সেমবার্গ, লিচটেনষ্টাইন, আইসল্যান্ড; প্রতি হাজার জীবিত জনে ৩ জন।
৭৯. সর্বোচ্চ গড় আয়ুর দেশ: জাপান; ৮২.৭ বছর [UNFPA 2018]।
৮০. সর্বনিম্ন গড় আয়ুর দেশ: আফগানিস্থান, ৪৬.৬ বছর [মানব উন্নয়ন রিপোর্ট ২০১৯]।
৮১. সর্বাধিক ব্যবহৃত ভাষা: মান্দারিন (চীনা); শতাধিক কোটি মানুষ এটি ব্যবহার করে।

২০২০ সালের জনসংখ্যার ক্রম অনুযায়ী দেশের তালিকা
Rank - Country - Populations - % of World
01 - China - 1,404,934,160 - 18.0%
02 - India - 1,368,588,808 - 17.5%
03 - United States - 330,499,310 - 4.23%
04 - Indonesia - 269,603,400 - 3.45%
05 - Pakistan - 220,892,331 - 2.82%
06 - Brazil - 212,219,313 - 2.71%
07 - Nigeria - 206,139,587 - 2.64%
08 - Bangladesh - 169,497,120 - 2.17%
09 - Russia - 146,748,590 - 1.88%
10 - Mexico - 127,792,286 1.63%

৮২. বৃহত্তম রাজধানী শহর (জনসংখ্যায়):টোকিও (জাপান); ৩ কোটি ৫৩ লাখ ২৭ হাজার।
৮৩. বৃহত্তম নগর(জনসংখ্যায়): সাংহাই (চীন); ১ কোটি ৩৩ লাখ্
৮৪. উষ্ণতম স্থান: দালাল, দেনাকিল ডিপ্রেসন, ইথিওপিয়া; বার্ষিক গড় তাপমাত্রা ৯৩,২০ ফারেনহাইট বা ৩৪০ সেন্টিগ্রেড।
৮৫. বৃহত্তম মরুভূমি:
• উষ্ণমণ্ডলীয়: সাহারা, উত্তর আফ্রিকা; ৩৫,০০,০০০ বর্গমাইল বা ৯১,০০,০০০ বর্গকিলোমিটার।
• উপকূলীয়: আতাকামা, চিলি; ৫৪০০০ বর্গমাইল বা ১৩৯,৮৬০ বর্গকিলোমিটার।

• নাতিশীতোষ্ণ: গোবি মরুভূমি, চীন; ৫,০০,০০০ বর্গমাইল বা ১২,৯৫,০০০ বর্গকিলোমিটার।
৮৬. পৃথিবীর বৃহত্তম অরণ্য: তৈগা।
৮৭. বৃহত্তম দ্বীপ: গ্রিনল্যান্ড, যার আয়তন ৮,৪০,০০৪ বর্গ মাইল বা ২১,৭৫,৬০০ বর্গকিলোমিটার।

 

পৃথিবীর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি: পার্ট-০৪

৮৮.বৃহত্তম দ্বীপ দেশ: ইন্দোনেশিয়া, যার আয়তন ৭,৩৫,৩৫৮ বর্গমাইল বা ১৯,০৪,৫৬৯ বর্গকিলোমিটার।

৮৯.বৃহত আগ্নেয় দ্বীপ: সুমাত্রা, ইন্দোনেশিয়া, আয়তন ১,৭১,০৬৯ বর্গমাইল বা ৪,৪৩,০৬৬ বর্গকিলোমিটার।
৯০.শীতলতম স্থান: প্লাটু স্টেশন, এন্টার্কটিকা, বার্ষিক গড় তাপমাত্রা ৫৬.৭০ সেলসিয়াস।
৯১.আর্দ্রতম স্থান: মসিনরাম, আসাম, ভারত, বার্ষিক গড় বৃষ্টিপাত ১১,৮৭৩ মিলিমিটার বা ৪৬৭৪ ইঞ্চি।
৯২.শুষ্কতম স্থান: আতাকামা মরুভূমি, চিলি (বার্ষিক বৃষ্টিপাত অনুযায়ী)।
৯৩.শুষ্কতম স্থান (জনবসতিপূর্ণ): আসওয়ান, মিশর, বার্ষিক বৃষ্টিপাত ০.০২”।
৯৪.আর্দ্রতম জনবসতিপূর্ণ স্থান: বুয়েনা ভেনতিয়া, কলম্বিয়া, বার্ষিক বৃষ্টিপাত ২৬৭ ইঞ্চি বা ৬৭৮১.৮০ মিলিমিটার।
৯৫.মহাদেশ – ৭টি (এশিয়া, ইউরোপ, আফ্রিকা, উত্তর আমেরিকা, দক্ষিণ আমেরিকা, ওশেনিয়া, এন্টার্কটিকা)।
৯৬.বৃহত্তম মহাদেশ – এশিয়া (আফ্রিকার ১.৫ গুণ, ইউরোপের ৪.৫ গুণ, অস্ট্রেলিয়ার ৬ গুণ) আয়তন প্রায় ৪ কোটি ৪০ লক্ষ ৩০ হাজার বর্গ কি.মি)
৯৭.আফ্রিকার সিং-ইথিপিয়া।
৯৮.মালভূমির মহাদেশ – আফ্রিকা।
৯৯.বরফের মহাদেশ – এন্টার্কটিকা।
১০০.এশিয়া ইউরোপকে একত্রে বলা হয় – ইউরেশিয়া
১০১.জনবসতিহীন মহাদেশ – এন্টার্কটিকা (উচ্চ তম মহাদেশ)
১০২.জ্যামিতিক সীমারেখার বিভক্ত-উত্তর আফ্রিকার দেশসমূহ।
১০৩.ডাউন আন্ডার – অস্ট্রেলিয়া,নিউজিল্যান্ড।
১০৪.দুই মহাদেশে অবস্থিত দেশ – রাশিয়া তুরস্ক, মিশর।
১০৫.পৃথিবীর উন্মোক্ত চিরিয়াখানা – আফ্রিকা মহাদেশ। কোন জলভাগ দ্বারা বিচ্ছিন্ন নয় – এশিয়া ও ইউরোপ মহাদেশ ও ক্ষুদ্রতম মহাদেশ-ওশেনিয়া।
১০৬.দুই মহাদেশে অবস্থিত শহর ইস্তাম্বুল।
১০৭.মূল মধ্যরেখা-গিনিচের মান মন্দিরের উপর দিয়ে কল্পনা করা হয়েছে। বিষুব রেখা/নিরক্ষ রেখার মান-০।
১০৮.কর্কটক্রান্তি রেখান মান – ২৩.৫ উত্তর অক্ষাংশ।
১০৯.মকরক্রান্তি রেখার মান – ২৩.৬৬ দক্ষিণ অক্ষাংশ।
১১০.সবচেয়ে সরু দেশ কোনটি? – চিলি। (দৈর্ঘ্য ৬১৫৫)।
১১১.পৃথিবীর সর্ব দক্ষিণের শহর কোনটি? – পুন্টা আরেনাস, চিলি।
১১২.সর্বাধিক দ্বীপ নিয়ে গঠিত দেশ কোনটি? – ইন্দোনেশিয়া (১৩,৫০০)

১১৩.ইন্দোনেশিয়ার কতটি দ্বীপে মানব বসতি আছে? -প্রায় ৬০০০ টি।
১১৪.সবচেয়ে বেশি নিরপেক্ষ দেশ কোনটি? – সুইজারল্যান্ড।
১১৫.কোন দেশ আন্তর্জাতিকভাবে কোন যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেনি? – সুইজারল্যান্ড।
১১৬.সুইজারল্যান্ড কবে জাতিসংঘের সদস্যপদ লাভ করে? - ১০ সেপ্টেম্বর, ২০০২।
১১৭.বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল দেশ কোনটি? – চীন (পৃথিবীর মোট সংখ্যার ২৩%)
১১৮.বিশ্বের ক্ষুদ্রতম প্রজাতন্ত্র কোনটি? – নাউরু (আয়তন -২১ বর্গ কিমি)
১১৯.বিশ্বের ক্ষুদ্রতম দেশ কোনটি? – ভ্যাটিকান সিটি (১০৮, একর)।

পৃথিবীর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি: পার্ট-০৫

১২০.বিশ্বের দীর্ঘতম সীমান্ত দুটি দেশের? – যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা (৬,৪১৬ কিমি-আলাস্কার ২৫৪৭ কিমি ছাড়াই)
১২১.দ্বিতীয় দীর্ঘতম সীমান্ত কোন দুটি দেশের? – আর্জেন্টিনা ও চিলি (৫২৫৫)।
১২২.সর্বাধিক লোক অতিক্রমকারী সীমান্ত কোনটি?- যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোর সীমান্ত (বছরে প্রায় ৫০ কোটি লোক অতিক্রম করে)।
১২৩.সর্বাধিক সীমান্ত বেষ্টিত দেশ কোনিটি? – চীন ও রাশিয়া (১৪ দেশের সাথে সীমান্ত)
১২৪.পৃথিবীর সংক্ষিপ্ত সীমান্ত কোনটি? – জিব্রাল্টার ও স্পেন (১.৫৩ কিমি)।
১২৫.দ্বিতীয় ক্ষুদ্র সীমান্ত কোনটি? – ভ্যাটিকান সিটি ও রোম (৪.০৭ কিমি)।
১২৬.আয়তনে বিশ্বের বৃহত্তম দেশ কোনটি? – রাশিয়া (পৃথিবীর মোট আয়তনের ১১.৫%)
১২৭.কোন দেশের রাজধানীকে বিভক্ত রাজধানী বলে? – নেদারল্যান্ড।
১২৮.কোন দেশের তিনটি রাজধানী? – দক্ষিণ আফ্রিকা।
১২৯.দক্ষিণ আফ্রিকার রাজধানী তিনটি কি কি? – প্রিটোরিয়া, কেপটাউন, ব্লমফনটেন।
১৩০.সৌরজগৎ প্রথম কে আবিষ্কার করেন? -কোপারনিকাস (১৫৪০)
১৩১.সর্বপ্রথম এভারেস্ট কে জয় করেন? – হিলারী তেনজিং (১৯৫৩)
১৩২.ভারতে গমনের সমুদ্র পথ কে আবিষ্কার করেন? – ভাস্কো দা গামা।

১৩৩.সর্ব প্রথম কোন মহিলা এভারেস্ট জয় করেন? – জনাকো তাবেই, ১৯৭৫ সালে।
১৩৪.প্রথম চন্দ্র প্রদক্ষিণ করেন কে? – ফ্লাঙ্ক বরম্যান ও অ্যান্ডারস (১৬৬৮)।
১৩৫.ট্যাঙ্গানিকা হ্রদ কে আবিষ্কার করেন? – ক্যাপ্টেন জন স্পেক (১৮৫৬)।
১৩৬.উত্তর মেরু কে আবিষ্কার করেন? – রবার্ট পিয়েরে (১৯০৯)
১৩৭.দক্ষিণ মেরু আবিষ্কার করেন কে? – এমান্ড সেন (১৯১২)
১৩৮.আমেরিকা আবিষ্কার করেন কে? – ইটালিয়ান নাবিক কলম্বাস (১৪৯৮)
১৩৯.পশ্চিম ভারতীয় দীপু পুঞ্জ কে আবিষ্কার করেন? – কলম্বাস (১৪৯২)
১৪০.ভিক্টোরিয়া জলপ্রপাত কে আবিষ্কার করেন? – ডেভিড লিভিংস্টোন।
১৪১.কে সর্বপ্রথম পালের নৌকায় বিশ্ব ভ্রমণ করেন? – ম্যাগিলান (১৫১৯)
১৪২.গ্রীনল্যান্ড কে আবিষ্কার করেন? – এরিক দি রেড ভাইকিং (৯৮২ সালে)
১৪৩.অস্ট্রেলিয়া কে আবিষ্কার করেন? – উইলিয়াম জ্যাকসন (১৯০৬)
১৪৪.আয়তনে পৃথিবীর বৃহত্তম দেশ কোনটি? – রাশিয়া
১৪৫.হংকং বর্তমানে কোন দেশের সাথে একীভূত আছে? – চীন।
১৪৬.বাংলাদেশ ছাড়া আর কোন দেশে পয়সা ক্ষুদ্রতম মুদ্রা? – মায়ানমার।

পৃথিবীর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি: পার্ট-০৬

বিশ্বের দীর্ঘতম যা কিছু
নদী (যৌথভাবে): মিসিসিপি মিসৌরি
প্রাচীর: চীনের মহাপ্রাচীর
পর্বতমালা: আন্দিজ পর্বমালা
সমুদ্রসৈকত: কক্সবাজার
প্রণালী: তাতার প্রণালী
উড়াল সড়কসেতু: বাং না এক্সপ্রেসওয়ে (থাইল্যান্ড ৫৪ কিমি)
খাল: গ্র্যান্ড খাল
কৃত্রিম খাল: সুয়েজ খাল
রেলপথ: ট্রান্স সাইবেরিয়ান রেলপথ
নদী: নীল নদ
সাতারের পথ: ইংলিশ চ্যানেল
বিরতিহীন ট্রেন: ফ্লাইং স্কটম্যান
রেল সুড়ঙ্গ: তান্না (জাপান)
গিরিখাত: মালাক্কা অববাহিকা
নদী অববাহিকা: আমাজান অববাহিকা
প্রাণী: কচ্ছপ
লম্ফ প্রাণী: ক্যাঙ্গারু
করিডোর: রামেশ্বরম মন্দিরের করিডোর
গলাবিশিষ্ট প্রাণী: জিরাফ
মূর্তি: মাদারল্যান্ড (রাশিয়া)
চলচিত্র: দি হিউম্যান কন্ডিশন
যুদ্ধ: শতবর্ষব্যাপী যুদ্ধ
জাহাজ: এমভি মন্ট (পূর্ব নাম কনক নেভিস)
মিলিটারি জাহাজ: এন্টারপ্রাইজ ক্লাস
যাত্রীবাহী জাহাজ: ওয়াসিস অব দ্য সি
কাঠের জাহাজ: পিটার ভন ড্যানজিং
সমুদ্র প্রাচীর: সাইমেনজিয়াম সি ওয়াল (দ. কোরিয়া)
সমুদ্র সেতু: হাং বে সেতু (চীন)
ঝুলন্ত সেতু: সুতং সেতু (চীন)
রেলওয়ে টানেল: সে ইকান টানেল (জাপান)

বিশ্বের দ্রুততম যা কিছু
প্রাণী: চিতা বাঘ
পাখি: সুইফট পাখি
মাছ: টুনি মাছ
সাপ: আফ্রিকার কালো মাম্বা
যাত্রীবাহী বিমান: কনকর্ড
যুদ্ধবিমান: লকহিড YF 123
ট্রেন: হারমনি এক্সপ্রেস (চীন)

সংগৃহিত 

আবেদনের শেষ তারিখঃ na

লোকেশনঃ বিশ্ব

Source: online